Dhaka University Mass Communication and Journalism Department News Portal

অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার পেলেন ১০ শিক্ষার্থী

এমসিজেনিউজ করেসপন্ডেন্ট

ডিইউএমসিজেনিউজ.কম

প্রকাশিত : ০৮:৩৭ পিএম, ২৩ জুলাই ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ১২:৪৭ পিএম, ১ আগস্ট ২০১৮ বুধবার

বিএসএস (সম্মান) পরীক্ষায় ভালো ফল করায় ১০জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার’ দেওয়া হয়েছে

বিএসএস (সম্মান) পরীক্ষায় ভালো ফল করায় ১০জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার’ দেওয়া হয়েছে

২৩ জুলাই ২০১৮ (সোমবার) সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনে অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে এই পুরষ্কার দেওয়া হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান কৃতী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কারের সনদপত্র ও চেক তুলে দেন।

এবারের পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন- মো. রাগিব রহমান, সঞ্জয় বসাক, ফারজানা তাসনীম পিংকি, জাকিয়া জাহান মুক্তা, মো. শামিম হোসেন, ওয়াহিদা জামান সিথি, সাইয়্যেদুজ্জামান, জিনাত শারমিন, দায়েদ হাসান ও দূর্জয় চক্রবর্তী।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. কাবেরী গায়েনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন স্মারক বক্তৃতা’ পাঠ করেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার।

‘কেন নাটক?’ এই শিরোনামে নাট্যচর্চার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বিশ্লেষণ তুলে ধরেন এই বক্তৃতায়। 

অনুষ্ঠানে সকলকে সহযোগিতা ও উপস্থিতির জন্য ধন্যবাদ জানান অধ্যাপক ড. আহাদুজ্জামান মোহাম্মদ আলী।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রয়াত অধ্যাপক সিতারা পারভীনের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ও পুরস্কার প্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, সামগ্রিক বিবেচনায় এই অর্জন গৌরবের।

জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদ নির্মূলে শিক্ষার্থীদের ভেতরে যে মূল্যবোধ থাকা অত্যন্ত জরুরি, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ তা নিশ্চিত করতে পারছে বলেই আমার বিশ্বাস, বলেন ঢাবি ভিসি। তিনি বিভাগের এমন আয়োজনেরও ভূয়সী প্রশংসা করেন। 

সাম্প্রতিক সময়ে ‘বহিরাগত’ নিয়ে যে অপতথ্য ও অপপ্রচার চলছে তার নিন্দা জানিয়ে উপাচার্য বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য নিরাপদ ক্যাম্পাস তৈরি করা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব। মুক্তিযুদ্ধ ও সুস্থ মূল্যবোধের পরিপন্থী কোন কিছুকেই বিশ্ববিদ্যালয় কখনো স্বাগত জানাবে না।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক সিতারা পারভীন ২০০৫ সালের ২৩ জুন যুক্তরাষ্ট্রে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। তিনি প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বিচারপতি শাহাবুদ্দীন আহমদের মেয়ে এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. আহাদুজ্জামান মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী। 

তার স্মৃতির উদ্দেশ্যে ২০০৬ সাল থেকে পরিবারের পক্ষ থেকে অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। 

প্রতিবছর বিভাগের স্নাতক সম্মান পরীক্ষায় সেরা দশ ফল অর্জনকারী এই পুরস্কার পেয়ে আসছে। 

এমসিজেনিউজ/ঢাবি