Dhaka University Mass Communication and Journalism Department News Portal

এমসিজে-৪০৯ শিক্ষার্থীদের অনলাইন মিডিয়া হাউজ পরিদর্শন

টিপু সুলতান ও সিনথিয়া আক্তার

ডিইউএমসিজেনিউজ.কম

প্রকাশিত : ০৫:২০ পিএম, ৩০ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার | আপডেট: ০৭:০৪ পিএম, ৩০ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার

এমসিজে-৪০৯ শিক্ষার্থীদের অনলাইন মিডিয়া হাউজ পরিদর্শন

এমসিজে-৪০৯ শিক্ষার্থীদের অনলাইন মিডিয়া হাউজ পরিদর্শন

দিনটি ছিলো ২৫ শে অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার। সকালের আবহাওয়া দেখে যে কারো মনে হতে পারতো ঘুমের জন্য সময়টা বেশ উপযোগী। কিন্তু সে ভাবনার উপায় ছিলো না ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চতূর্থ বর্ষের অনলাইন জার্নালিজম কোর্সের (এমসিজে-৪০৯) শিক্ষার্থীদের। বৃষ্টিস্নাত সকালে শিক্ষার্থীরা বেরিয়ে পড়লো ফিল্ডট্রিপে। গন্তব্য অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা২৪.কম এর কার্যালয়। এটি ছিল কোর্সের পাঠ্যসূচির অংশ। সুতরাং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সকলেই উপস্থিত। রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানে লেকের ধার ঘেঁষে একটি সাদা রঙের ভবনে এই সংবাদমাধ্যটির বাইরের পরিবেশ অত্যন্ত মনোরম। আর ভেতরটা অত্যন্ত গোছানো।

একটি পরিপাটি করে সাজানো মিটিং রুমের বড় মিটিং টেবিলে শিক্ষার্থীরা সকলে বসে। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখানে ঢুকলেন বার্তা২৪.কম এর এডিটর ইন চিফ আলমগীর হোসেন। সঙ্গে অনলাইন জার্নালিজমের কোর্সশিক্ষক ও সারাবাংলা.নেট এর নির্বাহী সম্পাদক মাহমুদ মেনন।

বার্তা২৪.কম এর কয়েকজন কর্মকর্তা ও সংবাদকর্মীও যোগ দেন। শুরু হলো আলাপচারিতা। শুরুতেই আলমগীর হোসেনের সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরলেন মাহমুদ মেনন। জানালেন তার প্রায় পঞ্চাশ বছরের সাংবাদিকতা ক্যারিয়ারের কথা। বাংলাদেশে তিনিই যে অনলাইন সাংবাদিকতার পথিকৃৎ সে কথা জানালেন। ২০০৪ সালে বিডিনিউজ২৪.কম প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে অনলাইন সাংবাদিকতার যাত্রা শুরু করেন এই আলমগীর হোসেন। যে উদ্যোগের সঙ্গে মাহমুদ মেননও ছিলেন একজন প্রতিষ্ঠাকালীন সঙ্গী।

এরপর আলমগীর হোসেন নিজেই শোনান তার বর্ণাঢ্য সাংবাদিকতা ক্যারিয়ারের গল্প। একই সঙ্গে তুলে ধরেন ২০০৪ সালে বিডিনিউজ২৪.কম’র প্রতিষ্ঠাকালের কথা। তবে আলোচনায় দ্রুতই চলে আসে বার্তা২৪.কম প্রসঙ্গ। বর্তমানে যার নেতৃত্ব দিচ্ছেন আলমগীর হোসেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, অনলাইন সাংবাদিকতা এখন আর শুধু লেখা আর ছবির মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, বরং এটি মাল্টিমিডিয়া সাংবাদিকতায় পরিবর্তিত হয়ে গেছে। ফলে এর সঙ্গে যোগ হচ্ছে ভিডিও, অডিও, সরাসরি সম্প্রচার প্রভৃতি নতুন নতুন কনটেন্ট।

আলমগীর হোসেন জানান, বার্তা২৪.কম একটি মাল্টি-মিডিয়া নিউজ পোর্টাল। সংবাদ পরিবেশনার সকল ধরনের মাধ্যম এতে ব্যবহৃত হচ্ছে। কেবল লিখিত সংবাদই নয়, প্রতিদিনই বেশ কিছু সংখ্যক অডিও-ভিজ্যুয়াল কনটেন্ট প্রকাশ করছে এই সংবাদমাধ্যমটি।

মাহমুদ মেনন অনলাইন সাংবাদিকতা নিয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠের সঙ্গে বাস্তব কাজের মিল-অমিলের দিকগুলো শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরেন। সত্যিকার অর্থে ২৪/৭ হয়ে উঠতে একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমকে যে সব আলাদা ঝক্কির মধ্য দিয়ে যেতে হয় সেগুলোও তুলে ধরেন তিনি।

আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীদের বার্তা ২৪ এর সার্ভার রুম, স্টুডিও ঘুরে দেখানো হয়। এরপর পুরো দলটি যায় নিউজ রুম পরিদর্শনে। সেখানে একটি ওপেন ফ্লোরে সারি সারি করে সাজানো ওয়ার্ক স্টেশনগুলোতে কাজ করছিলেন অন্তত জনা ত্রিশেক কর্মী। পরিচয় পর্বে জানা গেলো কেউ সরাসরি খবর সংগ্রহের সঙ্গে কেউ সংবাদ সম্পাদনার সঙ্গে সম্পৃক্ত। কেউ অডিও-ভিজ্যুয়ালে কাজ করেন, আবার কেউ কারিগরি দিকগুলোই দেখেন। এছাড়াও মূল সংবাদের বাইরে খেলার খবর, ফিচার, লাইফস্টাইলের কর্মীরাও একই ফ্লোরে পাশাপাশি বসে কাজ করছেন।

মাহমুদ মেনন এসময় বলেন, এটাই হচ্ছে অনলাইন সাংবাদিকতা চর্চার একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। সকলকে কাছাকাছি বসে, ওপেন ফ্লোরে কাজ করতে হয়। কারণ এতে পারস্পরিক তথ্য দেওয়া নেওয়া করা, একটি ব্রেকিং নিউজকে দ্রুত প্রকাশ করা সহজ হয়।

আলমগীর হোসেন বলেন, সংবাদ কিংবা সংবাদ সম্পর্কিত কনটেন্ট তৈরি একটি শিল্প। যাতে এক সঙ্গে একাধিক জনের কাজ করতে হয়। তবে তিনি এও জানান, এখন সময় এসেছে এক হাতে অনেক কাজ করার। একাই তথ্য সংগ্রহ করা, ছবি, ভিডিও সংগ্রহ করা, ক্রিপ্ট লেখা, ভয়েস দেয়া, ভিডিও এডিট করা এত সব কাজ শেষে পুরো একটি কাজ নিজেই শেষ করার চর্চা এখন বিশ^ জুড়ে চলছে। মাল্টি টাস্কিং শব্দটি ব্যবহার করে তিনি বলেন, এটা মাল্টি-টাস্কারের যুগ। ফলে সাংবাদিকতা যেমন সহজ হয়ে উঠেছে তেমনি নতুন নতুন চ্যালেঞ্জও সামনে আসছে।

সবশেষে ছিলো আপ্যায়ণ। মজাদার সব খাবারের আয়োজন করা হয় শিক্ষার্থীদের জন্য। সেখানেও চলে আলোচনা। পরিচয় হয় বার্তা২৪.কম এর প্রশাসন ব্যবস্থাপনা বিভাগের সুলতানা জাহানের সঙ্গে। তিনি জানালেন, তিনি নিজেও অডিও-ভিজ্যুয়াল কনটেন্ট তৈরিতে কাজ করেন। নিজেই উপস্থাপনা করেন বিভিন্ন শো।

এটাই মাল্টি-টাস্কিং বলেন মাহমুদ মেনন। তিনি বলেন, একটি কাজ করে সংবাদমাধ্যমে টিকে থাকা কঠিন। ফলে যিনি প্রশাসন সামলান তাকেও এখন দায়িত্ব নিতে হয় সাংবাদিকতা সম্পর্কিত কনটেন্ট তৈরির। টিকে থাকার জন্যই তা জরুরি হয়ে উঠেছে। আর এটাই অনলাইন সাংবাদিকতা চর্চার অন্যতম দিক।

প্রায় দুই ঘণ্টা বার্তা২৪.কম এ কাটিয়ে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ গন্তব্যের রওয়ানা দেয়।