Dhaka University Mass Communication and Journalism Department News Portal
Seminar on study in Sweden held at DU

Seminar on study in Sweden held at DU

A seminar on study in Sweden was held today, May 13, 2019 at the Central Gallery of Dhaka University (DU) Botany Department.

DU Vice-Chancellor Prof. Dr. Md. Akhtaruzzaman inaugurated the seminar as chief guest. Sweden Alumni Network and Swedish Embassy in Bangladesh jointly organized the event.

 


অসামাজিক কার্যকলাপে ছেয়ে গেছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

অসামাজিক কার্যকলাপে ছেয়ে গেছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

শহীদ মিনার আমাদের জাতীয় ইতিহাসের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। ১৯৫২ সালের পর থেকে শহীদ মিনার আমাদের সব গণতান্ত্রিক ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের একমাত্র আশ্রয় ও উৎসস্থল হিসেবে অবিস্মরণীয় ভূমিকা পালন করে আসছে। কিন্তু কতৃপক্ষের অবহেলায় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে হাইজ্যাকিং, ইভটিজিং, মাদক সেবন বেড়েই চলছে।


১২:৩৯ পিএম, ৪ নভেম্বর ২০১৯ সোমবার

Paint the walls red

Paint the walls red

People have always risen their voices against injustice. Procession, counter attacks on the anti-group are popular mediums of protests, but there are other forms that has gained popularity over time as well. One such kind is graffiti, which gives the protesters anonymity and allows one to protest through brainstorming. Since the liberation war of 1971, Graffiti has always played a major role in the history of expression. Another chapter was added in the recent times, when the walls of Dhaka University were painted with the words that screamed justice for the murdered BUET student Abrar Fahad.


০২:০৬ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

অভিযোগ বক্স নিয়ে অভিযোগ
ঢাবি হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হল

অভিযোগ বক্স নিয়ে অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল।  হলে ঢুকলেই প্রথমে চোখে পড়ে অতিথি কক্ষ।  সেই কক্ষের বাইরের দেয়ালে টাঙ্গানো রয়েছে একটি অভিযোগ বক্স। দেখেই বোঝা যায় অনেকদিন ধরেই বক্সটি খোলা হয় না।  অভিযোগপত্র দেয়ার পর হয়তো বিচার না পাওয়া কোনো শিক্ষার্থী ক্ষোভের বশে বক্সটির গায়ে লিখে রেখেছেন, ‘এটা কি খোলে কখনো?’ এ বিষয়ে হলের শিক্ষার্থীরা বলছেন, নামেই অভিযোগ বক্স থাকলেও তা আসলে কোনো কাজে আসে না। কিন্তু হল প্রশাসন বলছে, শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অনুযায়ী তা প্রভোস্টের মাধ্যমে সমাধান করা হয়।  


০১:২৮ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

অভিযোগ বক্স নিয়ে অভিযোগ
ঢাবি হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হল

অভিযোগ বক্স নিয়ে অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল।  হলে ঢুকলেই প্রথমে চোখে পড়ে অতিথি কক্ষ।  সেই কক্ষের বাইরের দেয়ালে টাঙ্গানো রয়েছে একটি অভিযোগ বক্স। দেখেই বোঝা যায় অনেকদিন ধরেই বক্সটি খোলা হয় না।  অভিযোগপত্র দেয়ার পর হয়তো বিচার না পাওয়া কোনো শিক্ষার্থী ক্ষোভের বশে বক্সটির গায়ে লিখে রেখেছেন, ‘এটা কি খোলে কখনো?’ এ বিষয়ে হলের শিক্ষার্থীরা বলছেন, নামেই অভিযোগ বক্স থাকলেও তা আসলে কোনো কাজে আসে না। কিন্তু হল প্রশাসন বলছে, শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অনুযায়ী তা প্রভোস্টের মাধ্যমে সমাধান করা হয়।  


০১:২৮ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

ডিজিটাল বাংলাদেশে এনালগ ঢাবি প্রশাসন

ডিজিটাল বাংলাদেশে এনালগ ঢাবি প্রশাসন

আধুনিক ও ডিজিটাল তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ছুটছে বাংলাদেশ।  প্রযুক্তির ব্যবহারে নানাক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুত গতিতে।  প্রশাসনিক, দাপ্তরিক, সাংগঠনিকসহ নানা কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে ডিজিটাল এ প্রযুক্তি। তবে প্রযুক্তির ব্যবহারের বিশাল সুযোগ থাকা সত্ত্বেও সেটি ব্যবহৃত হচ্ছে না দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। এখনও মান্ধাতার আমলের প্রক্রিয়া অনুসরণ করে চলছে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রশাসনিক কার্যক্রম। এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে রয়েছে চরম হতাশা ও ক্ষোভ।  সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলসহ চার দফা দাবির একটি দাবি ছিলো- বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম অটোমেশনের আওতায় নিয়ে আসা।


০১:০৮ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

দেয়াল যখন কথা বলে

দেয়াল যখন কথা বলে

মুক্তিযুদ্ধের পর থেকেই মত প্রকাশ ও প্রতিবাদের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে জনপ্রিয় ‘দেয়ালচিত্র’। সম্প্রতি বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটের দেয়ালগুলো আবার হয়ে উঠেছে সরব। আবু বকর, এহসান রফিক, হাফিজুর মোল্লা ও আবরার ফাহাদের মুখ বলে দিচ্ছে ছাত্ররাজনীতির নামে চলা নির্যাতন-নিপীড়নের নৃশংস সব ঘটনা।


১২:২৪ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

দেয়াল যখন প্রতিবাদ মঞ্চ

দেয়াল যখন প্রতিবাদ মঞ্চ

আবরার ফাহাদ। গত ৭ অক্টোবর রাতে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েটের শেরে বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে। তার সহপাঠীদের অভিযোগ এবং এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মনে করা হচ্ছে ফেসবুকে ভিন্নমত পোষণ করা কাল হয়েছিল আবরারের জন্য। কিন্তু এরপর্ ফুঁসে ওঠে বুয়েট। যে বুয়েটে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য প্রাণ দিতে হয় আবরারকে, সে বুয়েট হয়ে ওঠে শিক্ষার্থীদের জোরালো মত প্রকাশের কেন্দ্রস্থল।দীর্ঘদিন ধরে চলমান র‌্যাগিং, রাজনৈতিক দমন পীড়ন এবং নোংরা রাজনীতির বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান জানান দেয় বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। আর তাদের এ প্রতিবাদের অন্যতম ভাষা ছিল গ্রাফিতি বা দেয়াল লিখন।


১২:০৭ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

বেদনাঝঁরা সেই অক্টোবর

বেদনাঝঁরা সেই অক্টোবর

 

 

 

১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবর দিনটি ছিল মঙ্গলবার। বিটিভির পর্দায় চলছিলো মুক্তিযুদ্ধের পটভূমিতে রচিত জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘শুকতারা’। ১৫০ বছরের পুরনো জগন্নাথ হলের অনুদ্বৈপায়ন নামক ভবনের দোতলায় ছিল হলের টিভি কক্ষ। নাটকটি দেখার জন্য কক্ষটিতে হলের ছাত্র-কর্মচারী-অতিথিসহ ভিড় করেছিলেন প্রায় ৩০০ জন। আগে থেকেই বৃষ্টি হচ্ছিল সেদিন। হঠাৎ বিকট শব্দে ছাদের মাঝের অংশ ভেঙে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে ধুলায় অন্ধকার হয়ে যায় পুরো কক্ষ। ঘটনাস্থলেই মারা যান ৩৪ জন। পরে মারা যান আরও ছয়জন। তাদের মধ্যে ২৬ জন ছিলেন ছাত্র, কর্মচারী ও অতিথি ছিলেন ১৪ জন।

১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবর এমনই এক হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে। সেদিন ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের মেধাবী শিক্ষার্থীদের লাশের স্তুপ দেখে পুরো দেশ শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়েছিল। এ ঘটনার পর থেকে দিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শোক দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। নিহতদের স্মৃতি রক্ষার্থে পরবর্তী সময়ে এখানে নির্মিত হয় ‘অক্টোবর স্মৃতি ভবন’।

জানা যায়, বর্তমানে অক্টোবর স্মৃতি ভবনটি যেখানে দাঁড়িয়ে আছে সেখানে ১৯৪৭ সালে পূর্ব পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদের অধিবেশন বসতো। একে পরিষদ ভবন বা ‘এ্যাসেম্বলি হল’ বলা হত। ভবনটি ১৯৬৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকট হস্তান্তর করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভবনটিকে ছাত্রদের আবাসিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে জগন্নাথ হলের সাথে যুক্ত করেন। পরবর্তীতে একাত্তরের শহীদ আবাসিক শিক্ষক অনুদ্বৈপায়ন ভট্টাচার্যের নামে এর নামকরণ করা হয় ‘অনুদ্বৈপায়ন ভবন’।

এ ভবনটিতেই ছাত্রদের বিনোদনের ব্যবস্থা হিসেবে কর্তৃপক্ষ একটি বড় রঙিন টেলিভিশন স্থাপন করে। কক্ষের সামনের দিক, যেদিকটা নিচু ছিল সেখানেই রাখা ছিল টিভি। টিভির সামনের সমতল জায়গায় চৌকির মত রাখা ছিল। সেখানে বসতো ছোট ছেলে-মেয়েরা। আর তারপর থেকে পিছনের দিকে চেয়ার সাজানো ছিল। যেগুলোতে ছাত্রদেরই অগ্রাধিকার ছিল।

১৫ অক্টোবরের রাতটি ছিল খুবই দুর্যোগপূর্ণ, এ সময় বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট প্রবল নিম্ন চাপের কারণে মুষলধারে বৃষ্টি হয় এবং রাজধানী ঢাকার উপর দিয়ে প্রায় ১০০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়াসহ ঝড় বয়ে যায়। ভবনটির টিভি কক্ষের ছাদের খানিক ধ্বসে পূর্ব থেকেই বৃষ্টির পানি পড়ছিল। সেকারণে ভবনে মেরামতের কাজ চলছিল। ঐদিন রাত সাড়ে ৮টার সময় সেসময়ের জনপ্রিয় মুক্তিযুদ্ধের পটভূমিতে রচিত ধারাবাহিক নাটক ‘শুকতারা’ প্রচার শুরু হয়। ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে রঙিন টেলিভিশনে প্রিয় নাটক দেখার জন্য একে একে প্রায় ৩০০ জন ছাত্র ঐ ভবনে এসে টিভি দেখতে থাকে। অনেকে ভিতরে জায়গা না পেয়ে দরজার কাছে বা জানলার ধারে দাঁড়িয়ে ছিল।

রাত প্রায় পৌনে ৯টার দিকে টিভি দর্শনরত ছাত্রদের উপর নেমে আসে মর্মান্তিক মৃত্যুর বিভীষিকা। মুহূর্তের মধ্যে বিকট শব্দে লোহার বিম, ইট, সুরকি মিলিয়ে প্রায় ৫০টন ওজনের ছাদ ধসে পড়ে তাদের উপর। সারারাত ধরে চলে উদ্ধারকার্য, কিন্তু ক্রেন এবং আনুষঙ্গিক যন্ত্রের অভাবে তাও ঠিকভাবে হচ্ছিল না।

রাত ১০টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের জরুরি বিভাগে আহতদের চিকিৎসাকার্য শুরু হয়। এ সময় মুমূর্ষু আহত রোগীদের জন্য প্রচুর রক্তের প্রয়োজন ছিল। ‘রক্তের প্রয়োজন’ এ ঘোষণার সাথে সাথে সবাই হাসপাতালে ছুটে যায় রক্ত দিতে। হাজার হাজার মানুষ সে সময়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে এসে উপস্থিত হয়েছিল সেবা-সাহায্যের জন্য। এমনকি সেদিন রিক্সাওয়ালারাও এ কার্যে কারো কাছ থেকে ভাড়া নেননি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হলের কর্মচারী সুশীল কুমার দাস। তিনি ওই হলে এখনও চাকরিরত আছেন। ঘটনাক্রমে সেদিন এক ছাত্রকে সিট ছেড়ে দিয়ে সামনে গিয়ে বসায় সামান্য আঘাত প্রাপ্ত হয়ে প্রাণে বেঁচে যান তিনি। বর্তমানে তিনি অক্টোবর স্মৃতি ভবনের নিচতলায় একটি ছোট দোকান চালান। তিনি বলেন, তার ছেড়ে আসা সিটে বসা এক ছাত্র সেদিন মারা গিয়েছিল।

ঘটনার পরের দিন সকালের অবস্থার কথা বর্ণনা করে হলের দ্বার প্রহরী বিমল চন্দ্র রায় বলেন, হলের মাঠে সারি বেঁধে লাশগুলো রাখা হয়েছিল। নিহতদের আত্মীয়-স্বজনের আহাজারিতে হলের পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠেছিল। পুরো ক্যাম্পাস হয়ে পড়েছিলো নিঃস্তব্ধ। মানুষের এতো ভিড় হয়েছিল যে পুলিশ দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়েছে তাদের। ।

সেই ঘটনায় নিহতদের স্মরণে অক্টোবর স্মৃতিভবনের নিচতলায় একটি ছোট জাদুঘর রয়েছে। সেদিনের ব্যবহৃত টিভি রাখা আছে এই জাদুঘরে। মৃত্যুবরণ করা বেশ কয়েকজনের ছবিও আছে সেখানে। এছাড়া ভবনটির সামনে নিহতদের স্মরণে তাদের নাম সম্বলিত একটি নামফলকও স্থাপন করা হয়েছে।

 


১১:৫৭ এএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

Seminar on study in Sweden held at DU

Seminar on study in Sweden held at DU

A seminar on study in Sweden was held today, May 13, 2019 at the Central Gallery of Dhaka University (DU) Botany Department.

DU Vice-Chancellor Prof. Dr. Md. Akhtaruzzaman inaugurated the seminar as chief guest. Sweden Alumni Network and Swedish Embassy in Bangladesh jointly organized the event.

 


০২:৩৩ এএম, ১৪ মে ২০১৯ মঙ্গলবার

40 DU students awarded Sumitomo Corporation Scholarship

40 DU students awarded Sumitomo Corporation Scholarship

A total of 40 under-graduate students of different academic years of Dhaka University (DU) were awarded the Sumitomo Corporation Scholarship of Japan today.


১০:১১ পিএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ রবিবার

3rd Intl Conference on Business and Economics held at DU

3rd Intl Conference on Business and Economics held at DU

The 3rd International Conference on Business and Economics held in the University of Dhaka on October 09- 10 with “Shaping the Future Through Inclusive Development" as the theme.


০৭:১২ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার

Two UK Professors meet DU VC

Two UK Professors meet DU VC

Prof. Dr. Peter Hooda and Prof. Dr. Rosa Busquets of Kingston University London, UK called on Dhaka University (DU) Vice-Chancellor Prof. Dr. Md. Akhtaruzzaman July 26, 2018 at the latter’s office of the university.

 


১২:৩৫ এএম, ২ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার

A CAMPUS GLORIFIED WITH GRAFFITI

A CAMPUS GLORIFIED WITH GRAFFITI

Graffiti has always been a powerful expression against oppression.  It has also been a valid way to convey a message of social or political importance. And Dhaka University being the hub of every movement which compels us to shape up our critical consciousness has always been glorified with some significant graffiti.


০৮:৫৮ পিএম, ৭ নভেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার

Dhaka University observes “Black Day”

Dhaka University observes “Black Day”

Dhaka University (DU) observed “Black Day” marking the countrywide atrocities and repression on the university’s teachers, students and officials from August 20 to 23 in 2007 during the caretaker government regime.


১০:০১ পিএম, ২৬ আগস্ট ২০১৭ শনিবার

Scandinavian diplomats call on DU VC

Scandinavian diplomats call on DU VC

A group of diplomats from three Scandinavian countries called on Dhaka University (DU) Vice-Chancellor Prof. Dr. AAMS Arefin Siddique today August 23, 2017 at the latter’s office of the university.


০৬:৩৪ পিএম, ২৩ আগস্ট ২০১৭ বুধবার

DU,IBA and EY India sign MoU on training

DU,IBA and EY India sign MoU on training

A Memorandum of Understanding (MoU) between the Institute of Business Administration (IBA) of the University of Dhaka (DU) and the Ernst & Young LLP (EY), a business management consultant firm in Gurgaon, India was signed on August 10, 2017 at the Treasurer’s office of DU to implement “Middle Management Training Program”.


১১:৪৬ এএম, ১১ আগস্ট ২০১৭ শুক্রবার

Egyptian diplomat calls on DU VC

Egyptian diplomat calls on DU VC

Deputy Head of Mission of Egyptian Embassy in Bangladesh Ahmed Zaki called on Dhaka University (DU) Vice-Chancellor Prof. Dr. AAMS Arefin Siddique today, February 23, 2017 at the latter’s office of the university. Some teachers of DU Arabic Department were present on this occasion.


১১:১৮ এএম, ১২ জুন ২০১৭ সোমবার

Malaysian team meets DU VC

Malaysian team meets DU VC

A two-member delegation led by Prof. Dr. Azizi Bin Miskon, Director of Center for Research and Innovation Management of the National Defence University of Malaysia called on Dhaka University (DU) Vice-Chancellor Prof. Dr. AAMS Arefin Siddique today, February 14, 2017 at the latter’s office of the university.


০৫:৪২ এএম, ১২ জুন ২০১৭ সোমবার